Thursday , December 14 2017
শিরোনাম
You are here: Home / দেশ / রোহিঙ্গা সঙ্কটে বাংলাদেশের পাশে আছে ভারত: শ্রিংলা

রোহিঙ্গা সঙ্কটে বাংলাদেশের পাশে আছে ভারত: শ্রিংলা

রোহিঙ্গা সঙ্কটে বাংলাদেশের পাশে আছে ভারত: শ্রিংলা

ডিটেকটিভ নিউজ ডেস্ক

মিয়ানমারের সঙ্গে ভারতের কূটনৈতিক ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে উল্লেখ করে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা বলেছেন, রোহিঙ্গা সঙ্কটে ভারত বাংলাদেশের পাশে আছে। তিনি বলেন, বাংলাদেশে যে পরিমাণ রোহিঙ্গা এসেছে তারা বাংলাদেশের অর্থনীতি ও নিরাপত্তার জন্য হুমকিস্বরূপ। এরপরও বাংলাদেশ তাদের মানবিক বিবেচনায় আশ্রয় দিয়েছে। এজন্য আমরা বাংলাদেশকে সাধুবাদ জানাই। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ভারতীয় ত্রাণসামগ্রী হস্তান্তরের সময় এসব কথা বলেন তিনি। ভারতীয় হাইকমিশনারের কাছ থেকে ত্রাণসামগ্রী গ্রহণ করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। হর্ষবর্ধন শ্রিংলা বলেন, ভারত বাংলাদেশের বন্ধুপ্রতিম দেশ। পুরো বিষয়টিতে আমরা বাংলাদেশকে সমর্থন করি। তাই রোহিঙ্গাদের জন্য আমাদের যে ত্রাণসামগ্রী পাঠানো হচ্ছে তার নাম দেওয়া হয়েছে অপারেশন ইনসানিয়াত। ‘বাংলাদেশে প্রায় ৪ লাখ রোহিঙ্গা এসেছে। বাংলাদেশের মতো বহুল জনসংখ্যার দেশে তাদের খাদ্য ও বস্ত্র যোগান দেওয়া বড় চ্যালেঞ্জ। বিষয়টি অনুধাবন করে ভারত ৭ হাজার টন ত্রাণসামগ্রী পাঠিয়েছে। টানা ৪৮ ঘণ্টা কাজ করে ৫৩ টন পাঠানো হয়েছে। বাকিগুলো ভারতের বিশাখা পত্তম বন্দর থেকে জাহাজে এবং বিমানে করে আগামি কয়েকদিনের মধ্যে চট্টগ্রাম আসবে। এসময় উপস্থিত ছিলেন ভারতের ভারপ্রাপ্ত চট্টগ্রাম সহকারী হাইকমিশনার অরুন্ধতি দাস, চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার আবদুল মান্নান, জেলা প্রশাসক জিল্লুর রহমান চৌধুরী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ মাসুকুর রহমান শিকদার, বিমানবন্দর ম্যানেজার উয়িং কমান্ডার রিয়াজুল কবির প্রমুখ। দুপুর ১টা ১৫ মিনিটে ভারতীয় ত্রাণ নিয়ে আসা সি-১৭ বিমানটি অবতরণ করে। ত্রাণসামগ্রীর মধ্যে রয়েছে চাল, ডাল, চিনি, লবণ, বিস্কুট, গুঁড়ো দুধ, নুডলস, সাবান, মশারি ও তেল। প্রত্যেক জনকে ১৫ কেজির প্যাকেট দেওয়া হবে। শিগগির এসব ত্রাণসামগ্রী কক্সবাজারের টেকনাফ, উখিয়া ও বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের মাঝে বিতরণ করা হবে। এর আগে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে মরক্কোর ১৪ টন ত্রাণসামগ্রী বিমানবন্দরে এসে পৌঁছে। ত্রাণসামগ্রীর মধ্যে ছিল ৭০ পিস তাঁবু, ১ হাজার পিস কম্বল, ৫০০ পিস ওষুধ, গুঁড়ো দুধ ২ টন, মেট্রেস ১ টন এবং ৪ টন চাল। চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) হাবিবুর রহমান এসব ত্রাণসামগ্রী গ্রহণ করেন। এ সময় মরক্কোর অ্যাম্বাসেডর মো. মজিদ হালিম, জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। গত ৯ সেপ্টেম্বর মালয়েশিয়া রোহিঙ্গাদের জন্য ১২ টন ত্রাণ পাঠিয়েছিল।

About admin

Comments are closed.

Scroll To Top