Saturday , September 23 2017
শিরোনাম
You are here: Home / রাজনীতি / সরকারি ত্রাণ তৎপরতা নিয়ে ‘ফাঁকা আওয়াজ’ না দিতে খালেদার প্রতি আহ্বান ত্রাণমন্ত্রীর

সরকারি ত্রাণ তৎপরতা নিয়ে ‘ফাঁকা আওয়াজ’ না দিতে খালেদার প্রতি আহ্বান ত্রাণমন্ত্রীর

সরকারি ত্রাণ তৎপরতা নিয়ে ‘ফাঁকা আওয়াজ’ না দিতে খালেদার প্রতি আহ্বান ত্রাণমন্ত্রীর

ডিটেকটিভ নিউজ ডেস্ক

বন্যার্তদের জন্য সরকারি ত্রাণ তৎপরতা নিয়ে ‘ফাঁকা আওয়াজ’ না দিতে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া। যুক্তরাজ্যে অবস্থানরত বিএনপি নেত্রী গত রোববার এক বিবৃতিতে বন্যা পরিস্থিতি মোকাবেলায় শুধু মুখের কথা ছাড়া সরকারের কার্যকর কোনো উদ্যোগ নেই বলে অভিযোগ আনার পর একথা বললেন ত্রাণমন্ত্রী। চলতি মৌসুমের দ্বিতীয় দফার বন্যার সবশেষ পরিস্থিতি জানাতে গতকাল সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ করে মায়া বলেন, বিদেশে বসে ফাঁকা আওয়াজ দিয়ে কোনো লাভ হবে না। আমরা বন্যা প্লাবিত মানুষের পাশে আছি। আপনি বা আপনার নেতারা কোথায় আছেন, সেটা জনগণ ঠিকই দেখতে পাচ্ছেন। আপনাদের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের সামর্থ না থাকলে আমাদের কাছ থেকে ত্রাণ সমাগ্রী নিয়ে হলেও জনগণের পাশে দাঁড়ান। ওই বিবৃতিতে খালেদা জিয়া অভিযোগ করে বলেছিলেন, বন্যাকবলিত এলাকায় কোনো জরুরি ত্রাণ তৎপরতা নেই। বন্যা দুর্গত মানুষকে নিরাপদে উঁচু জায়গায় সরিয়ে নেওয়ার কথা বলা হলেও কার্যকর কোনো ব্যবস্থা এখনও দেখা যাচ্ছে না। সরকারের লিপ সার্ভিস ছাড়া এই ভয়াবহ বন্যা মোকাবেলায় বাস্তব কোনো সার্ভিস নেই। বিএনপির নেত্রীর এ অভিযোগ নাকচ করে ত্রাণমন্ত্রী মায়া বলেন, আমরা প্রত্যেকটি জেলার বন্যা পরিস্থিতি সতর্কতার সাথে পর্যবেক্ষণ করছি।প্রধানমন্ত্রী প্রতিনিয়ত বন্যা ও ত্রাণ কার্যক্রমের খোঁজখবর নিচ্ছেন, আমাদের প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দিচ্ছেন। যতগুলো দুর্যোগ আমরা মোকাবেলা করেছি, ততবারই বলেছি সকল দলমত নির্বিশেষে সবাই এই দুস্থ মানুষদের পাশে এসে দাঁড়াতে। কিন্তু ওইভাবে কারো সাড়া আমরা পাইনি। ত্রাণমন্ত্রী বলেন, নেত্রী (খালেদা জিয়া) লন্ডনে বসে যে বিবৃতি দিয়েছেন আমি অত্যন্ত হতাশ হয়েছি। উনি তো আগের বন্যায়ও কোথায় যাননি। এখন উনি বিদেশে বসে কি করছেন সবাই জানি। আমি অনুরোধ করব আপনি চলে আসেন। মানুষের পাশে দাঁড়ান, যেটা দরকারৃ এসব বাইরে বসে ফাঁকা আওয়াজ না দেওয়াই ভালো, এখন মানুষ কিন্তু অনেক সজাগ-সচেতন। বন্যায় ১৯৮৮ সালে বিপর্যের কথা স্মরণ করে মায়া বলেন, ইনশাল্লাহ অস্টআশির চেয়ে বড় বন্যা হলেও আমি বিশ্বাস করি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যেভাবে দিক নির্দেশনা দিচ্ছেন, যে মজুদ আমাদের রয়েছে, আমরা মোকাবেলা করতে পারব, আমাদের সঙ্কট নেই। সংবাদ সম্মেলনে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক রিয়াজ আহমেদ ছাড়াও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

About admin

Comments are closed.

Scroll To Top