Thursday , January 18 2018
শিরোনাম
You are here: Home / Uncategorized / ঢাকা মেডিকেলের নার্সের আত্মহত্যা

ঢাকা মেডিকেলের নার্সের আত্মহত্যা

ঢাকা মেডিকেলের নার্সের আত্মহত্যা

ডিটেকটিভ নিউজ ডেস্ক

রাজধানীর চকবাজার এলাকার একটি বাসা থেকে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় এক নার্সের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে পুলিশের সন্দেহ ওই নার্স আত্মহত্যা করেছেন। নিহত নার্স কলিয়া পারভীন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সিনিয়র স্টাফ নার্স হিসেবে কর্মরত ছিলেন। চকবাজার থানার এসআই আশরাফুল আলম জানান, গত রোববার রাত ৯টার দিকে চকবাজার থানার মলাই বিবির গলির উমেশ দত্ত সড়কের একটি বাড়ির ষষ্ঠ তলা থেকে নিহত নার্সের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। সেখানেই আরেক সহকর্মীর সঙ্গে সাবলেট থাকতেন নিহত কলিয়া। গত রোববার রাত ৮টার দিকে ওই বাড়ির মালিক নাসিরউদ্দিন তাঁর ভাড়াটিয়া দরজা খুলছে না বলে পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে কলিয়ার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে। আশরাফুল আলম আরো জানান, নিহত নার্সের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মিটফোর্ড হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন পাওয়ার পর মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে জানা যাবে। এদিকে বাড়িওয়ালা নাসির উদ্দিন জানান, তিন মাস আগে তাঁর বাসায় একটি কক্ষ ভাড়া নিয়েছিলেন ঢামেক হাসপাতালের দুই নার্স কলিয়া ও খালেদা। গত রোববার বিকেল ৫টার দিকে কলিয়ার স্বামী তাঁকে ফোন করে জানান, তিনি তাঁর স্ত্রীকে ফোনে পাচ্ছেন না। এরপর বাড়ির মালিক বাসায় গিয়ে ডাকাডাকি করেও কোনো সাড়া না পেয়ে পুলিশে খবর দনে। পুলিশ এসে দরজার ছিটকিনি ভেঙে কলিয়ার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে। আর নিহত কলিয়ার সহকর্মী খালেদা জানান, তিনি সকালে ঘুমে থাকতেই কলিয়া কাজে চলে যান। দুপুরে তিনি বের হওয়ার আগে কলিয়া ফেরেননি। পরে পুলিশের ফোন পেয়ে বাসায় এসে তাঁর লাশ দেখতে পান। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, নিহত কলিয়া পারভীন ঢামেকে নতুন ভবনের কেবিন ব্লকে দায়িত্ব পালন করতেন। আট মাস আগে ঢামেক হাসপাতালে তাঁর চাকরি হয়। তাঁর বাড়ি জয়পুরহাট জেলায়। সকালের পালায় কাজ শেষ করে তিনি বাসায় চলে যান। সহকর্মী ও রুমমেট খালেদা আরো জানান, কলিয়ার স্বামী আরাফাত রহমান জয়পুরহাটে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন। এই দম্পতির কোনো সন্তান নেই।

About admin

Comments are closed.

Scroll To Top