Friday , October 20 2017
শিরোনাম
You are here: Home / অনিয়ম / রাজনগরে হতদরিদ্রদের তালিকায় ব্যাপক অনিয়ম-দুর্ণীতি ও দলীয়করন

রাজনগরে হতদরিদ্রদের তালিকায় ব্যাপক অনিয়ম-দুর্ণীতি ও দলীয়করন

রাজনগরে হতদরিদ্রদের তালিকায় ব্যাপক অনিয়ম-দুর্ণীতি ও দলীয়করন

ডিটেকটিভ নিউজ ডেস্ক

রাজনগরে হতদরিদ্রদের জন্য সরকার নির্ধারিত মৃল্যে কার্ডের মাধ্যমে খাদ্যশষ্য বিতরন ইউনিয়নওয়ারী তালিকায় ব্যাপক অনিয়ম-দুর্ণীতি ও দলীয়করন করা হয়েছে। জানা গেছে- হতদরিদ্রদের জন্য সরকার নির্ধারিত মৃল্যে কার্ডের মাধ্যমে খাদ্যশষ্য বিতরন নীতিমালা-২০১৬ ইউনিয়নওয়ারী তালিকা প্রণয়নের জন্য রাজনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা তালিকা যাচাই কমিঠির সভাপতি মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম (স্বারক নং-০৫.৪৬.৫৮৮০.০০৩.০১.০১৮.১৬.৭২১, তারিখ ঃ ০৭/০৮/২০১৬ইং) স্বাক্ষরিত পত্রে ছক মোতাবেক হতদরিদ্রদের তালিকা যতাযত ভাবে প্রণয়ন পৃর্বক গত ২০/০৮/২০১৬ইং প্রেরনের অনুরুদ জানালেও ২নং উত্তর ভাগ ইউনিয়নের তালিকা প্রনয়ন কমিঠির সভাপতি ও রাজনগর এলজিডি উপসহকারী প্রকৌশলী মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম ২নং উত্তর ভাগ ইউনিয়নের সচিব সুজিত লাল দাশ সঠিক তালিকা প্রণয়নের জন্য কোন সভা আহবান করেননি। পরবর্তীতে গত ২৫/০৯/২০১৬ইং (স্বারক নং-৫৬/১৬) ২নং উত্তরভাগ ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান শাহ শাহিদুজ্জামান ছালিক স্বাক্ষরিত এলজিএসপি-২ বাস্তবায়ন এর জন্য সভা আহবান করেন। বিবিধ আলোচনায়  বর্তমান চেয়ারম্যান শাহ শাহিদুজ্জামান ছালিক ৮শত ৯৮ জন সুবিধাভোগীর তালিকায় বর্তমান পরিষদের মেম্বারসহ সংশ্লিস্টদের স্বাক্ষর করার জন্য অনুরুদ জানালে উপস্থিত ইউপি সদস্যগন প্রতিবাদ জানান। এ সময় চেয়ারম্যান এর অনুরুদে অন্যান্য সদস্যগন স্বাক্ষর করলেও ৮নং ওয়ার্ডের মেম্বার জুয়েল আহমদ স্বাক্ষর না করে প্রতিবাদ জানান। অভিযোগ রয়েছে সরকারী নিয়ম লংঙ্গন করে ২নং উত্তরভাগ ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান শাহ শাহিদুজ্জামান ছালিক ও তার ছোট ভাই ডিলার শাহ খালেদ আহমদ, ২নং উত্তরভাগ ইউনিয়নের সচিব সুজিত লাল দাশ, ছোয়াবআলী বাজার ব্যবসায়ী হারাধন ধর ও সুজিত দাশ মিলে ইউনিয়নের হতদরিদ্রদের জন্য সরকার নির্ধারিত মূল্যে কার্ডের তালিকা তৈরি করেন।                                                                                               মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলায় ২নং উত্তরভাগ ইউনিয়নে হতদরিদ্রদের জন্য সরকার নির্ধারিত মূল্যে কার্ডের তালিকায় সিলেটের এক ্এমপির পিএস এর শশুর ৮নং ওয়ার্ডের (কার্ড নং-৬৫৮, জাতীয় পরিচয় পত্র নং- ৫৮১৮০৮৪৩৪১৪৮৪) সত্যেন্দ্র দেবনাথ, মোছাঃ নুপুর বেগম (কার্ড নং-৬৪৬, জাতীয় পরিচয় পত্র নং- ৫৮১৮০৮৪৩৪২১৬৭) প্রবাসী ছেলে, মুক্তি রানী দেব (কার্ড নং-৬৪৭, জাতীয় পরিচয় পত্র নং- ৫৮১৮০৮৪৩৪২২৪৬) মাসিক চাল উত্তোলন করেন, বাবুল চন্দ দাস (কার্ড নং-৬৫৫, জাতীয় পরিচয় পত্র নং- ৫৮১৮০৮৪৩৪২২৬৫) ব্যবসায়ী, করুনাময় নাথ (কার্ড নং-৬৬৩, জাতীয় পরিচয় পত্র নং- ৫৮১৮০৮৪৩৪২২৩১) প্রবাসী ছেলে, শাহ ছখাওয়াত আলী (কার্ড নং-৬৬৭, জাতীয় পরিচয় পত্র নং- ৫৮১৮০৮৪৩৪২০৫০) স্বাবলম্বী পরিবার, অখিল দাশ (কার্ড নং-৬৭৩, জাতীয় পরিচয় পত্র নং- ৫৮১৮০৮৪৩৪২১৯৫ ) ভাতাভোগী পরিবার, মাখন বিবি (কার্ড নং-৬৭৮, জাতীয় পরিচয় পত্র নং- ৫৮১৮০৮৪৩৩৮৬১৩ ) ভাতাভোগী পরিবার, জমিরুন নেছা (কার্ড নং-৬৮১, জাতীয় পরিচয় পত্র নং- ৫৮১৮০৮৪৩৩৮৪৬৩ ) ভাতাভোগী পরিবার ও গত ইউপি পরিষদের সময় স্বামীকে মৃত দেখিয়ে ভাতা উত্তেলন করেন, কর্মজিত দে (কার্ড নং-৬৮৬, জাতীয় পরিচয় পত্র নং- ৫৮১৮০৮৪৩৩৮৫০০) ব্যাবসায়ী, অলি রানী দাশ (কার্ড নং-৬৯৮, জাতীয় পরিচয় পত্র নং- ৫৮১৮০৮৪৩৪৩১৫১) মাসিক চাল উত্তোলন কারী, মোঃ ইনুছ মিয়া (কার্ড নং-৬৮৭, জাতীয় পরিচয় পত্র নং- ৫৮১৮০৮৪৩৩৮৫৬৪) মাসিক চাল উত্তোলন কারী পরিবার,  দোলাল মিয়া (কার্ড নং-৬৮৮,জাতীয় পরিচয় পত্র নং- ৫৮১৮০৮৪৩৩৮৬৪৮ ) ভাতাভোগী পরিবার ও মহরম আলী (কার্ড নং- ৫১৪, জাতীয় পরিচয় পত্র নং- ৫৮১৮০৮৪৩৩২০১) ভাতাভোগী পরিবার প্রমুখ। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ইউপি সচিব সুজিত লাল দাশ অনিয়মের অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করে বলেন – তিনি তালিকা প্রনয়নের জন্য কোন পত্র পাননি। তাই যতা নিয়মে সভা আহবান করা হয়নি। ডিলার শাহ খালেদ আহমদ তালিকা তৈরির কতা অস্বীকার করে বলেন- তালিকা যতাযত নিয়মেই করা হয়েছে। তবে কিছু সুবিধাভোগী বাদ পড়েছেন এবং কিছু স্বচ্ছল ব্যাক্তি তালিকায় এসেছে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে চেয়ারম্যান শাহ শাহিদুজ্জামান ছালিক একাধিকবার ফোন দিলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

About admin

Comments are closed.

Scroll To Top