Thursday , November 23 2017
শিরোনাম
You are here: Home / দূনীতি / ‘স্যার, শখ করে জাল টাকা বানিয়েছি’

‘স্যার, শখ করে জাল টাকা বানিয়েছি’

bg20160819180835নিউজ ডেস্ক :: জাল নোটসহ আজিজুল হক আজিম (২৭) নামে একজনকে আটক করেছে পটিয়া থানা পুলিশ। আটকের পর আজিম সাংবাদিকদের সামনে পুলিশ সুপারকে জানায়, শখের বশে আজিম জাল টাকা ছাপাতো।

বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) গভীর রাতে আজিমকে পটিয়া উপজেলার মনসা এলাকা থেকে আটক করে পুলিশ। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ কক্সবাজারের রামু থেকে একটি ফটোকপিয়ার মেশিন ও একটি প্রিন্টার জব্দ করেছে। পুলিশ আজিমের কাছ থেকে চার হাজার টাকা মূল্যমানের জালনোট উদ্ধার করেছে। এর মধ্যে ৫০, ১০০, ৫০০ ও ১০০০ টাকার জালনোট আছে।

আটকের পর শুক্রবার দুপুরে আজিমকে জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। আজিম সাংবাদিকদের সামনে পুলিশ সুপার নূর ই আলম মিনাকে বলে, ‘স্যার, এটা আমার পেশা না। শখ করে জাল টাকা বানিয়েছি। আমি ভুল করেছি।

পুলিশ সুপার নূর ই আলম মিনা সংবাদ সম্মেলনে বলেন, সামনে কোরবানির ঈদ। এসময় সবচেয়ে বেশি নগদ টাকাপয়সা লেনদেন হয়। এর মধ্যে জাল টাকার ব্যবহার বেশি হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। বিশেষ করে যারা গ্রামগঞ্জ থেকে গৃহস্থ, গরু বিক্রির জন্য বাজারে আসে তারা সাধারণত টাকা যাচাই করে নেন না। তাদের প্রতারিত হওয়ার সুযোগ থাকে।

‘এটা একটা চমৎকার অভিযান। আজিমের মাধ্যমে কোরবানির গরুর বাজারে অনেক লোক ক্ষতিগ্রস্ত হত।’ বলেন পুলিশ সুপার।

সংবাদ সম্মেলনে জাল নোট তৈরির কৌশল সম্পর্কে আজিম সাংবাদিকদের জানায়, আসল নোটের আদলে সাধারণ কাগজে জাল নোটগুলো ছাপানো হয়। একসঙ্গে এক পৃষ্ঠায় যতগুলো নোট ছাপানো যায় ততগুলো ছাপানো হয়। তারপর এন্টিকাটার দিয়ে সেগুলো কাটা হয়।

আজিম কক্সবাজারের রামু উপজেলার জোয়ারিয়ালানা গ্রামের আব্দুস শুক্কুরের ছেলে।

সংবাদ সম্মেলনে চট্টগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) মুহাম্মদ রেজাউল মাসুদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) একেএম এমরান ভূঁইয়া, পটিয়া থানার ওসি রেফায়েত উল্লাহ চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

About admin

Comments are closed.

Scroll To Top